বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যান ট্রাস্ট গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৪ ডিসেম্বর ২০১৬

যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের সেবা সমূহ

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট

১)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের রাষ্ট্রীয় সম্মানী ভাতা ও দুই ঈদে দুইটি মূল ভাতার সমপরিমাণ ঈদ বোনাস প্রদান।

২)  মৃত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের রাষ্ট্রীয় সম্মানী ভাতা ও দুই ঈদে দুইটি মূল ভাতার সমপরিমাণ ঈদ বোনাস প্রদান।

৩)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের দেশে ও বিদেশে (ভারত,সিঙ্গাপুর ও থাইল্যান্ড) চিকিৎসা সুবিধা প্রদান।

৪)  খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের (বীর উত্তম, বীর বিক্রম এবং বীর প্রতীক) রাষ্ট্রীয় সম্মানী ভাতা প্রদান।

৫)  শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জন্য রাষ্ট্রীয় সম্মানী ভাতা ও দুই ঈদে দুইটি মূল ভাতার সমপরিমাণ ঈদ বোনাস প্রদান।

৬)  বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ পরিবারের জন্য রাষ্ট্রীয় সম্মানী ভাতা প্রদান।

৭)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা এবং মৃত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের কন্যার বিবাহ ভাতা প্রদান।

৮)  নতুন ভাতা চালুর বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে মতামত প্রদান ও অনুমোদনে চেয়ে পত্র প্রেরণ।

৯)  ভাতাভোগী মৃত্যুবরণ করলে উত্তরাধীকারী নির্ধারণ/পুন: নির্ধারণ।

১০)  ভাতাভোগীর মৃত্যুর কারণে উত্তরাধীকারী না থাকলে ভাতা স্থগিতকরণ।

১১)  যুদ্ধাহত ও মৃত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা এর শহীদ পরিবারের সদস্যদের নাম রেকর্ডভুক্ত করা।

১২)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের পগুত্ব নির্ণয়ের জন্য গঠিত কমিটিকে সাচিবিক সহায়তা প্রদান।

১৩)  ভারতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের (ভলিউমে নাম থাকা সাপেক্ষে) প্রত্যয়নপত্র প্রদান।

১৪)  মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে ট্রাস্টের নিজেস্ব অর্থে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন, সাভার স্মৃতিসৌধে এবং বঙ্গভবনে প্রটোকলের দায়িত্ব পালন।

১৫)  মহান বিজয় দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে সাভার স্মৃতিসৌধ এবং বঙ্গভবনে প্রটোকলের দায়িত্ব পালন।

১৬)  ২১শে ফেব্র“য়ারী মহান শহীদ দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দায়িত্ব পালন।

১৭)  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে   ট্রাস্টের নিজেস্ব অর্থে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণে হুইল চেয়ারধারী মুক্তিযোদ্ধাদের সহযোগিতা প্রদান।

১৮)  মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও নাতি নাতনীদের বঙ্গবন্ধু বৃত্তি প্রদান।

১৯)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের শিক্ষা ভাতা প্রদান।

২০)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা,মৃত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারকে ২৬শে মার্চ ও ১৬ই ডিসেম্বর উপলক্ষ্যে প্রীতিভোজের ব্যবস্থা করা।

২১)  স্বাস্থ্য উপদেষ্টার সুপারিশের প্রেক্ষিতে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের সংশ্লিষ্ট হাসপাতালে ভর্তির জন্য পত্র প্রেরণ।

২২)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের ছেলে মেয়েদের বিনা বেতনে লেখা পড়ার সুযোগদানের জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানকে সুপারিশসহ পত্র প্রেরণ।

২৩)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ পরিবার এবং মৃত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জন্য রেশন কার্ড প্রদান।

২৪)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের পরিচয়পত্র ও বিমান চার্ট প্রদান।

২৪)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের পানির বিল,গ্যাস বিল, বিদ্যুৎ বিল মৌকুফের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট পত্র প্রেরণ।

২৫)  যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের চলাচলের জন্য হুইল চেয়ার,ক্রাচ,লাঠি,কৃত্রিম অঙ্গ,জুতা-মোজা,শ্রবণ যন্ত্র,চশমা ইত্যাদি প্রদান করা হয়।

২৬)  হুইল চেয়ারেচলাচলকারী সম্পূর্ণ পগু যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বৎসরে একবার কক্সবাজারে আবহাওয়া পরিবর্তন/ঐতিহসিক স্থান পরিদর্শনের ব্যবস্থা করা হয়।

২৭)  ঢাকায় অবস্থানরত সকল যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা তাদের পরিবার ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জন্য ট্রাস্টের খরচে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও বনভোজনের আয়োজন করা হয়।

২৮)  রাষ্ট্রীয় সম্মানী ভাতা প্রাপ্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা মৃত্যুবরণ করলে তার ইচ্ছানুযায়ী মরদেহ দাফন/সৎকারের ব্যবস্থা ট্রাস্টের নিজেস্ব অর্থে করা হয়ে থাকে।

২৯)  সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বসবাসরত: যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের ১৫০০ বর্গ ফুট পর্যন্ত নিজস্ব বাড়ীর হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফ এর বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যোগাযোগ।

৩০)  চিকিৎসা ও বিভিন্ন কাজে ট্রাস্টের কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ রাখার জন্য ০১-০৭-২০০১ খ্রি: সালে হুইল চেয়ারধারী যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের প্রত্যেকে ট্রাস্টের ফান্ড থেকে একটি করে মোবাইল ফোন দেওয়া হয়েছে এবং মাসিক ১১০০ - ১৯০০/- টাকা পর্যন্ত মোবাইল কার্ড সুবিধা প্রদান করা হয়।

৩১)বিশেষ সুবিধা চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের পথ্য ও ফল সরবরাহ করা হয়ে থাকে। 


Share with :
Facebook Facebook